প্রবাসী হয়রানি বন্ধ করুন: ইউরোপীয় ডায়াস্পোরার নেতাদের আবেদন

April 4, 2020, 12:48 PM, Hits: 333

প্রবাসী হয়রানি বন্ধ করুন: ইউরোপীয় ডায়াস্পোরার নেতাদের আবেদন

হ-বাংলা নিউজ : ইউরোপে অবস্থিত প্রবাসী নেতা, সামাজিক ও উন্নয়ন কর্মী ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব গতকাল প্রকাশিত এক যৌথ বিবৃতিতে বাংলাদেশী কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যে বাংলাদেশে ফিরে আসা প্রবাসী ও অভিবাসী কর্মীদের হয়রানির শিকার হচ্ছে । তাদের প্রতি মানবিক আচরণ প্রদর্শন করার জন্য বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষের কাছে তারা আবেদন করেন।

তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও আবেদন করেছেন যেন সেবার ক্ষেত্রে অভিবাসীদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করতে এবং যারা তাদের বসতি দেশে ফিরে যেতে ইচ্ছুক তাদের সহায়তা করার জন্য।

তারা বলেন, রেমিট্যান্স বাংলাদেশের জিডিপি'র প্রবৃদ্ধির সর্বাত্মক। বাংলাদেশী অভিবাসী তাদের কঠোর শ্রম দেশটির জন্য ত্যাগ করে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। বাংলাদেশী অভিবাসী বার্ষিক ষোল বিলিয়ন ডলারের রেমিট্যান্স প্রেরণ করে যা বাংলাদেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সাম্প্রতিক দিনগুলিতে করোনার ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পরে স্বল্প সংখ্যক অভিবাসী বাংলাদেশে ফিরে এসেছিলেন। তবে উদ্বেগের সাথে আমরা পর্যবেক্ষণ করছি যে সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিবাসীদের বিদেশ থেকে করোনার ভাইরাস আনার জন্য দোষ দেওয়া হচ্ছে। দুর্ভাগ্যক্রমে, এর ফলস্বরূপ, প্রত্যাবাসিত অভিবাসীদের অপমান ও শারীরিক নির্যাতন করা হচ্ছে বাংলাদেশের অনেক জায়গায়। প্রত্যাবাসিত অভিবাসীদের পাশাপাশি বিদেশী কর্মী সহ কয়েক হাজার মানুষ বিদেশ থেকেও দেশে ফিরে এসেছিলেন।

মিডিয়া এবং কিছু স্থানীয় কর্তৃপক্ষ কর্নো ভাইরাস ছড়ানোর জন্য শুধুমাত্র অভিবাসীদের দোষ দেওয়া হচ্ছে, যার ফলে অভিবাসীরা বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন । পুলিশ এবং ম্যাজিস্ট্রেটরা লাল পতাকা সহ অভিবাসীদের বাড়ি সনাক্ত করছে। প্রশাসন কেবলমাত্র অভিবাসীদের এবং যারা বিদেশ থেকে আসছে তাদের বাইরে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করছে। এর ফলে অভিবাসীরা হয়রানির মুখোমুখি হচ্ছে যা মানবাধিকার লঙ্ঘন।

সাম্প্রতিক দিনগুলিতে করোনার ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের ফলে হাজার হাজার বাংলাদেশী অভিবাসী ইতালি ও স্পেন সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চাকরি হারিয়েছেন। করোনার ভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করেছে এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লুএইচও) ১১ মার্চ ২০২০ সালে করোনাকে মহামারী হিসাবে ঘোষণা করেছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো এই ভাইরাসটিও বাংলাদেশে প্রভাব ফেলেছে।

অন্যদের মধ্যে যৌথ বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীরা হলেন ইউরোপীয় বাংলাদেশ ফোরাম (ইবিএফ) এর সভাপতি আনসার আহমেদ উল্লাহ, হাবিব বাবুল, চিফ এডিটর, শুদ্ধস্বর ডট কম, জার্মানি, সুধোশর ডটকম, , জার্মানি, বিকাশ চৌধুরী, চেয়ারম্যান, বাসুগ, নেদারল্যান্ডস, এএইচএম আবদুল হাই, প্রধান সম্পাদক, আওয়ার ভয়েস, জার্মানি, ডাঃ মজিবুর দফতরি, লেখক ও গবেষক, ফিনল্যান্ড, শরাফ আহমেদ, সাংবাদিক ও সামাজিক কর্মী, জার্মানি, মুরাদ খান, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, নেদারল্যান্ডস, এমএমআর মনোয়ার, সামাজিক ও মানবাধিকার কর্মী, যুক্তরাজ্য, খলিলুর রহমান, কান্ট্রি কোঅর্ডিনেটর, ইউরোপীয় বাংলাদেশ ফোরাম, সুইজারল্যান্ড এবং অরুণ বড়ুয়া, সভাপতি, সংখ্যালঘু কাউন্সিল, সুইজারল্যান্ড। 

 
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ