বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপন ঘরে ঘরে টার্কি ভোজ পার্টি

December 5, 2019, 11:13 AM, Hits: 624

বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপন ঘরে ঘরে টার্কি ভোজ পার্টি

সাখাওয়াত হোসেন সেলিম, হ-বাংলা নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে আমেরিকানদের পাশাপাশি বাংলাদেশী কমিউনিটিও উৎসবমুখর পরিবেশে দিনটি উদযাপন করে। দিনটিতে ব্যক্তি ও পারিবারিক উদ্যোগ ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের অয়োজন করা হয়। ফলে ঘরে ঘরে টার্কি ভোজের পাশাপাশি গান-বাজনারও আয়োজন হয়। উল্লেখ্য, আমেরিকার এক সর্বজনীন সামাজিক-সাংস্কৃতিক উৎসব থ্যাংকসগিভিং ডে। টার্কিভোজ থ্যাংকস গিভিং ডে’র অন্যতম অনুসঙ্গ। আমেরিকানদের কাছে খুবই জনপ্রিয় খাবার এটি। স্বজনদের সাথে টার্কি ভোজের মাধ্যমে দিবসটি উদযাপন করা রীতিমত ঐতিহ্যের অংশ। 

এদিকে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপিত উপলক্ষ্যে প্রতিবছরের মতো এবছরও ম্যাসির উদ্যোগে ম্যানহাটানে এদিন দুপুরে বর্ণাঢ্য প্যারেড আয়োজিত হয়। হাজার হাজার নরনারী প্যারেডটি উপভোগ করেন। অপরদিকে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে-তে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ‘সারপ্রাইজ ভিজিট’-এ আফগানিস্তান সফর এবং সেনা কর্মকর্তা ও জোয়ানদের সাথে মিলিত হন।   

থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপিত উপলক্ষ্যে গত ২৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদের জ্যামাইকায় তার বাস ভবনে তার্কি ভোজ পার্টির আয়োজন করা হয়। এতে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অংশ নেন। নার্গিস আহমেদ ও ফার্মাসিস্ট দম্পতি অতিথিদের স্বাগত জানান। অনুষ্ঠানে প্রবাসের শিল্পীরা মধ্যরাত পর্যন্ত সঙ্গীত পরিবেশন করেন। 

অপরদিকে নিউইয়র্কের রিচমন্ডহীলে বসবাসকারী শহীদ-শেলী ও জহির-রেবেকা দম্পতির উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পারিবারিকভাবে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপন করা হয়। এতে তাদের আতœীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধবরা সপরিবারে অংশ নিয়ে অনুষ্ঠানটি উৎসবমুখর করে তুলেন। 

নিউইয়র্কে আর্তমানবতার সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান মজুমদার ফাউন্ডেশন এবার ভিন্নভাবে উদযাপন করেছে থ্যাঙ্কস সগিভিং ডে। সংগঠনটি বৃহস্পতিবার ব্রঙ্কসের একটি চার্চ এবং একটি শেল্টারে বিরিয়ানী বিতরণের মাধমে উদযাপন করে ঐতিহ্যবাহী দিনটি।

বাপা: থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উপলক্ষ্যে বাপা বৃহস্পতিবার ব্রঙ্কসে টার্কি ভোজ পার্টির আয়োজন করে। এতে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অংশ নেন। বাপা প্রেসিডেন্ট ফরিদা ইয়াসমীন আমন্ত্রিত অতিথিদের স্বাগত জানান। 

মৌলভীবাজার ডিষ্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন: মৌলভীবাজার ডিষ্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা’র উদ্যোগে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপন উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সিটির সানি সাইডের ফোর ফ্লেভার রেষ্টুরেন্টে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী মৌলভীবাজারবাসী, সংগঠনের সকল কর্মকর্তা, ট্রাষ্টিবোর্ড ও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সপরিবারে এবং কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অংশ নেন। এসোসিয়েশনের সভাপতি ফজলুর রহমান, সিনিয়র সহ সভাপতি মাসুক মিয়া, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান এবং কোষাধ্যক্ষ মঈনুল ইসলাম আগত অতিথিদের স্বাগত জানান। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতার শিল্পী অনিন্দিতা চৌধুরী সহ প্রবাসী শিল্পী মুক্তধর, মনিকা রায় প্রমুখ। তবলায় ছিলেন শীতেষ ধর ও পিনু সেন দাস। উল্লেখ্য, এই প্রথম কোন বাংলাদেশী সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে ব্যাপক আয়োজনে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপন করা হয়। 

অনুষ্ঠানটি সফল করার জন্য সবশেষে সভাপতি ফজলুর রহমান উপস্থিত সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। 

অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে বিশিষ্ট ট্রাভেল ব্যবসায়ী, ডিজিটাল ট্রাভেলস এস্টারিয়ার স্বত্তাধিকারী নজরুল ইসলাম, পূর্ব জড়ি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকার নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান শেফাজ, শ্রীমঙ্গল এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সুমন এলাহী, মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামীম চৌধুরী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আরজান খান, বড়লেখা এসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল জব্বার, সমাজসেবী মইনুজ্জামান চৌধুরী, জাকির হোসেন, এমরান তরফদার, জাভেদ আহমদন প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

নয়ন-আলী প্যানেল: থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতাকারী ‘নয়ন-আলী’ প্যানেলের পক্ষ থেকে জ্যামাইকার পার্সন্স বুলেভার্ডস্থ একটি রেষ্টুরেন্টে গত শুক্রবার এক পার্টির আয়োজন করে। এতে প্যানেলটির সভাপতি পদপ্রার্থী কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মোহাম্মদ আলী সহ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তি সহ ‘নয়ন-আলী’ প্যানেলের প্রার্থী ও সমর্থক সহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী এই পার্টিতে যোগ দেন। অনুষ্ঠানে প্রবাসের শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন। 

মজুমদার ফাউন্ডেশন: থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উপলক্ষ্যে মজুমদার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ এন মজুমদার এবং বিশিষ্ট এটর্নী এইচ ব্রæশ ফিসার সংগঠনটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে এদিন সকাল ১১ টায় বিরিয়ানী বিতরণ করেন। মজুমদার ফাউন্ডেশনের ডাইরেক্টর রাশেদ মজুমদারের পরিচালনায় এ সময় অন্যন্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন স্থানীয় কমিউনিটি বোর্ডের ডিস্ট্রিক্ট ম্যানেজার উইলিয়াম রিভারা, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট ড. সারাহ, ডা. নাহিদ খান, মোজাফফর হোসেন, এ ইসলাম মামুন, আবুল খায়ের আকন্দ প্রমুখ।

পরে মোহাম্মদ এন মজুমদার এবং এটর্নী এইচ ব্রæশ ফিসারের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল খলিল বিরিয়ানীর বক্স ব্রঙ্কসের একটি চার্চের নির্বাহীর হাতে হাতে তুলে দেন। এরপর তারা ব্রঙ্কসের একটি শেল্টারেও অনুরূপভাবে বিরিয়ানীর বক্স বিতরণ করেন।

এ সময় প্রবাসী আইনজীবী মোহাম্মদ এন মজুমদার জানান, সা¤প্রদায়িক স¤প্রীতি, ভ্রাতৃত্ববোধ ও সহমর্মিতার মানবিকতায় উজ্জ্বীবিত হয়ে মজুমদার ফাউন্ডেশন বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে বিতরণ করেছে বিরিয়ানীর বক্স। অভিবাসনের দেশ আমেরিকায় ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব জাতির মিলিত উৎসব আনন্দের মাধ্যমে যে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে উদযাপিত হয় সে বিষয়টিকেই সামনে নিয়ে আসা হয় এ কর্মসূচির মাধ্যমে। মানুষে মানুষে সুসম্পর্ক সৃষ্টিতে এটি একটা ভাল উদ্যোগ। মোহাম্মদ এন মজুমদার বলেন, সমাজের পেছনে পড়ে থাকা জনগোষ্ঠীর দিকে তাকিয়ে দেখার জন্যও এ ধরণের কর্মসূচি আয়োজন একটি দৃষ্টান্ত। বিগত কয়েক বছর ধরে এ ধরণের কর্মসূচির আয়োজন করে আসছে সংগঠনটি।

হৃদয়ে বাংলাদেশ: সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন হৃদয়ে বাংলাদেশ’র উদ্যোগে উদযাপিত হয় থ্যাঙ্কস গিভিং ডে। গত ২৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ব্রঙ্কসের এশিয়ান ড্রাইভিং স্কুল পার্টি সেন্টারে বর্ণাঢ্য এই আয়োজনের ভোজ টার্টিতে টার্কি ছাড়াও ছিল মজাদার সব খাবার-দাবার। খলিল বিরিয়ানীর বড় টার্কি ছাড়াও কেক কেটে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী শারমিন তানিয়া ও শিপু চাকলাদারের মনমুগ্ধকর সঙ্গীত পরিবেশনা উৎসবে ভিন্ন মাত্রা যোগ করে। 

হৃদয়ে বাংলাদেশ’র সভাপতি সাইদুর রহমান লিংকনের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পল্লব সরকারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাঙালী চেতনা মে র সভাপতি আবদুর রহিম বাদশা, খলিল বিরিয়ানী হাউজের স্বত্ত¡াধিকারী মোঃ খলিলুর রহমান, হৃদয়ে বাংলাদেশ’র সাহিত্য সম্পাদক মাকসুদা আহমেদ, নারী নেত্রী মেহের চৌধুরী, ৭১’র যুদ্ধবন্দী আব্দুর রহমান, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট শাহ বদরুজ্জামান রুহেল, মাসুদ রানা, রায়হান জামান রানা, বান্টি প্রমুখ।

ব্যতিক্রমী এ উৎসবে রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, কবি, লেখক, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, নতুন প্রজন্ম সহ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা এমন উদ্যোগের জন্য হৃদয়ে বাংলাদেশ’র ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসে দেশীয় সংস্কৃতির আবহে নানা অনুষ্ঠান আয়াজনের মাধ্যমে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করছে।

সাইদুর রহমান লিংঙ্কন বলেন, সবার সহযোগিতা আমাদের নতুন নতুন কাজের অনুপ্রেরণা যোগায়। সবাইকে সাথে নিয়ে প্রবাস প্রজন্ম সহ মূলধারায় বাংলাদেশকে তুলে ধরার প্রত্যয়ে এগিয়ে যাবে সংগঠনটি। তিনি আসন্ন বিজয় দিবসের উৎসব আয়োজন সফলে সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ