জ্যাকসন হাইটসে বাগ’র সমাবেশ কর্মস্থলে হিজাব-টুপি-টারবান ব্যবহারের বিলে গভর্নরের স্বাক্ষর দাবী

April 19, 2019, 12:13 PM, Hits: 207

জ্যাকসন হাইটসে বাগ’র সমাবেশ কর্মস্থলে হিজাব-টুপি-টারবান ব্যবহারের বিলে গভর্নরের স্বাক্ষর দাবী

সালাহউদ্দিন আহমেদ, হ-বাংলা নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : নিউইয়র্ক ষ্টেট পার্লামেন্টের উভয় কক্ষে রাজ্যের কর্মস্থলে মুসলিম, শিখ সহ সকল ধর্মীয় পোশাকের অবাধ ব্যবহারের বিল পাশের পর তা অবিলম্বে কার্যকর করতে গভর্ণর এন্ড্রু কুমোর স্বাক্ষরের দাবীতে জ্যাকসন হাইটটসে সমাবেশ হয়েছে। বাংলাদেশী আমেরিকান এডভোকেসী গ্রæপ (বাগ) এই সমাবেশের আয়োজন করে। উল্লেখ্য, বাগ সহ বিভিন্ন সংগঠন মহলের টানা ৮ বছরের দেন-দরবারের ফলে গত ৯ এপ্রিল নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেট ও অ্যাসেম্বলী হাউজে সর্বসম্মতিতে বিলটি পাশ হয়। বিলটি কার্যকর করতে এখন ষ্টেট গভর্নরের স্বাক্ষর প্রয়োজন এবং গভর্ণরের স্বাক্ষরের পর বিলটি আইনে পাশ হবে।

আরো উল্লেখ্য, হিজাব, টুপি, টারবান, পায়জামা-পাঞ্জাবি আইনসিদ্ধ হতে যাচ্ছে নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের কর্মস্থলে। গত ৯ এপ্রিল মঙ্গলবার বিলটি সর্বসম্মতভাবে নিউইয়র্ক স্টেট সিনেটে ও অ্যাসেম্বলীতে পাশ হয়। সিনেটে উপস্থিত ৬০ জনের সকলেই এ বিলে (এস৪০৩৭) ভোট দেন। এর আগে অনুরূপ একটি বিল পাশ হয়েছে ষ্টেট অ্যাসেম্বলীতে। বিলটি উত্থাপন করেছিলেন জ্যামাইকা নির্বাচনী এলাকার ষ্টেট অ্যাসেম্বলীম্যান ডেভিড ওয়েপ্রিন। আর সিনেটে উত্থাপন করেন একই এলাকার স্টেট সিনেটর জন ল্যু। উভয় বিল এখন রাজ্য গভর্ণরের স্বাক্ষরের জন্যে তার টেবিলে। তিনি বিলটিতে স্বাক্ষর করলেই তা আইনে পরিণত হবে। আরো উল্লেখ্য, এমন একটি বিল সর্বপ্রথম ষ্টেট পার্লামেন্টে উঠেছিল ২০১১ সালে। কিন্তু রিপাবলিকানদের আপত্তির জন্যে তা কখনোই ষ্টট সিনেটে পাশ হতে পারেনি। গত বছরের মধ্যবর্তী নির্বাচনে নিউইয়র্ক স্টেট পার্লামেন্টের উভয় কক্ষেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় ডেমোক্র্যাটরা।

নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে ডাইভার্সিটি প্লাজায় গত ১২ এপ্রিল শুক্রবার বিকেলে আয়োজিত সমাবেশে ষ্টেট সিনেট ও অ্যাসেম্বলী হাউজে মুসলিম স¤প্রদায় সহ সকল ধর্মের মানুষের অধিকারের জন্য ঐতিহাসিক এই বিল পাশে সকল আইন প্রণেতাদের প্রতি ‘কৃতজ্ঞতা’ জানানো হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন স্টেট সিনেটর জন ল্যু ও স্টেট অ্যাসেম্বলীম্যান ব্রায়ান বার্ণওয়েল। বিরটি পাশে এই দুই আইন প্রণেতা ছাড়াও ষ্টেট অ্যাসেম্বীম্যান ডেভিট ওয়েপ্রীনের বিশেষ ভ‚মিকা রয়েছে। বাগ-এর জেনারেল সেক্রেটারী জয়নাল আবেদীনের পরিচালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন বাগ-এর প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার কামাল ভ‚ইয়া, বাগের নির্বাহী পরিচালক ড. জাহাঙ্গীর কবির, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট দিলরুবা চৌধুরী, ইয়ং ডেমক্র্যাটিক ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ জয় চৌধুরী, মুসলিম উম্মাহ’র মীর মাসুম আলী, শাহানা মাসুম, নতুন প্রজন্মের কলেজ ছাত্রী দিনা উদ্দিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশে জন ল্যু ও  ব্রায়ান বার্ণওয়েল তাদের বক্তব্যে বলেন, নিউইয়র্ক হচ্ছে অভিবাসীদের রাজ্য। দলমত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এই রাজ্যের সকল মানুষের সমান অধিকার সমন্নত রাখতে আমরা বদ্ধ পরিকর। ধর্ম, বর্ণ এবং জাতিগত কারণে একজন নাগরিকও যাতে হয়রানি, হেনস্তা অথবা বৈষম্যের শিকার না হন-সে ব্যাপারেও আমরা সোচ্চার রয়েছি।

সমাবেশকারীরা বিলটিতে স্বাক্ষের পক্ষে গর্ভণরের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে শ্লোগানও দেয়।

 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ