এ অভিশাপ থেকে বাঁচে না কেউ!

April 19, 2019, 11:30 AM, Hits: 132

এ অভিশাপ থেকে বাঁচে না কেউ!

হ-বাংলা নিউজ : এএস রোমার টুইটারে রীতিমতো হুমকিই দেওয়া হলো, ‘মৌসুম শেষ হওয়ার আগে ড্রেকের সঙ্গে রোমার খেলোয়াড়দের ছবি তোলা নিষিদ্ধ।’ ফুটবলারদের ব্যক্তিগত জীবনে হস্তক্ষেপ! এত বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলল রোমা?

ইতালিয়ান দলটিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনুসরণ করলে এদের অ্যাডমিনের রসবোধের সঙ্গে পরিচয় আছে সবারই। ক্লাবের হাত থেকে ম্যালকমকে কেড়ে নিয়েছিল বার্সেলোনা, এ নিয়ে একের পর টুইট করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বার্সেলোনাকে নাজেহাল করে ছেড়েছে তারা। এবার ইউরোপিয়ান ফুটবল জুড়ে চলা এক আতঙ্ক নিয়েও তাই মজা করতে ছাড়েনি রোমার টুইটার অ্যাকাউন্ট। যে আতঙ্কের নাম ড্রেক অভিশাপ।

ফুটবলে কুসংস্কারে বিশ্বাসী লোকের অভাব নেই। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে লরা ব্লা ফ্যাবিয়েন বার্থেজের টেকো মাথায় চুমো এঁকে দিতেন। ইয়োহান ক্রুইফ হার্ট বেলসের পেটে চাপড় মারতেন, প্রতিপক্ষের অংশে চুইংগাম ফেলতেন। অনেক সমর্থকই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সৌভাগ্যের প্রতীক নিয়ে মাঠে যান। ড্রেক অভিশাপের জন্মটাও তেমন সব বিশ্বাস থেকে।

কানাডিয়ান শিল্পী ড্রেক ক্রীড়াজগতে বেশ পরিচিত। ফুটবল হোক বা বাস্কেটবল, অথবা বক্সিং কিংবা এনএফএল—সবখানেই দেখা যায় তাঁকে। সে সুবাদে ক্রীড়াবিদদের সঙ্গে ছবিটবিও বেশ তোলেন। আর সে ছবিগুলোই এখন কাল হচ্ছে!

২০১৯ সালে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপ সফরে বেরিয়েছিলেন ড্রেক। আর সে সুবাদে অনেক ছবিও তুলেছেন। ড্রেকের সঙ্গে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে ছবিও দিয়েছেন সবাই। এর সর্বশেষ শিকার বনেছেন সার্জিও আগুয়েরো। এই স্ট্রাইকার টটেনহামের সঙ্গে ম্যাচ জেতানো গোল এনে দিয়ে পরে দেখলেন, সেটা অফসাইডে বাতিল হয়েছে! এর আগে প্রথম লেগে পেনাল্টি মিস করেছেন আগুয়েরো। মার্চেই ড্রেকের সঙ্গে ছবি তুলেছিলেন আগুয়েরো!

আর্সেনালের স্ট্রাইকার পিয়েরে-এমেরিক অবামেয়াংও ড্রেকের সঙ্গে দেখা করেছেন, ক্লাবের একটি জার্সিও উপহার দিয়েছেন। কদিন পরেই নিজেদের মাঠে আর্সেনাল এভারটনের কাছে হেরে বসেছে। পল পগবাও কদিন আগেই ড্রেকের সঙ্গে দেখা করেছেন, বাড়তি হিসেবে পেয়েছেন এফএ কাপে উলভারহ্যাম্পটনের কাছে কোয়ার্টার ফাইনালের হার। পগবার দুই সতীর্থ হেসে লিনগার্ড ও মার্কাস রাশফোর্ডও ড্রেকের কনসার্টে ছিলেন, তাই দোষটা তিনজনের ঘাড়েই পড়ে।

এ মৌসুমে দুর্দান্ত খেলছেন জাডোন সানচো। ইংলিশ এই কিশোরে মেতেছে পুরো ইউরোপ। ১১ মার্চ ড্রেকের সঙ্গে ছবি তুলেছেন। এর তিন সপ্তাহের মাথায় বরুসিয়া ডর্টমুন্ড বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৫ গোলে উড়ে গেছে। বুন্দেসলিগাও প্রায় হাতছাড়া হয়ে গেছে সানচোর ক্লাবের। এসব দেখেই ইউনাইটেড চেষ্টা করেছিল অভিশাপটা বার্সেলোনার গায়ে মাখাতে। চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের আগে বার্সেলোনার জার্সি পরিহিত ড্রেকের ছবি পোস্ট করেছিল ইউনাইটেড। আশা করেছিল অভিশাপটা বার্সার গায়েও লাগুক, আর সে সুবাদে তারা চলে যাক সেমিফাইনালে। কিন্তু সে বুদ্ধি কাজে লাগেনি।

অভিশাপ গায়ে লাগাতে হলে বোধ হয় নিজ থেকে ছবি দিতে হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। রোমা তো আর শুধু শুধু হুমকি দেয়নি!  

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ