আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহে শ্রদ্ধা জানাতে নানার বাড়িতে মানুষের ঢল

October 20, 2018, 7:02 AM, Hits: 276

আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহে শ্রদ্ধা জানাতে নানার বাড়িতে মানুষের ঢল

হ বাংলা নিউজ : কিংবদন্তি ব্যান্ড সংগীত শিল্পী ও গিটারের জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহ চট্টগ্রামের পূর্ব মাদারবাড়ির নানার বাড়িতে পৌছলে সেখানে শ্রদ্ধা জানাতে ঢল নেমেছে শোকাহত ভক্তদের। সেখানে লাইন ধরে প্রিয় শিল্পীকে এক নজর দেখার চেষ্টা করছেন হাজার হাজার ভক্ত। শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নানার বাড়ি পৌছে আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহবাহী গাড়ি। এর আগে থেকেই প্রিয় আইয়ুব বাচ্চুকে দেখতে অসংখ্য ভক্ত নানার বাড়িতে ভীড় জমান বলে জানান প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর মামা আবদুল আলীম। তিনি জানান, ভক্তদের মাঝে রাজনৈতিক নেতা, ব্যবসায়ী, সাংস্কৃতিক কর্মীসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা রয়েছেন। এরমধ্যে চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী,  বিএনপি নেতা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, তার ছেলে ব্যারিস্টার মীর হেলাল উদ্দিন চৌধুরীও রয়েছেন। আমাদের কর্ণফুলী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি মুহাম্মদ আজাদ আইয়ুব বাচ্চুর নানার বাড়ি থেকে জানান, আইয়ুব বাচ্চুকে এক নজর দেখতে এবং মরদেহে শ্রদ্ধা জানাতে হাজার হাজার মানুষের ঢল নেমেছে। একপথে লাইন ধরে অসংখ্য মানুষ কফিনের দিকে এগুচ্ছে, অন্যপথে বেরিয়ে যাচ্ছে।

শৃঙ্খলা বজায় রাখতে অর্ধশতাধিক পুলিশ হিমশিম খাচ্ছে। চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন সরজমিনে উপস্থিত থেকে ভক্তদের ভীড় সামলাচ্ছেন। চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন জানান, চসিকের তত্ত্ববধানে শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর দাফন করা হচ্ছে। বিকেল ৩টার দিকে তার মরদেহ চট্টগ্রাম জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ ময়দানে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে জানাজা শেষে বাদ আছর তাকে সমাহিত করা হবে। এর আগে শনিবার সকাল ১১টা ১০ মিনিটে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের লাউঞ্জ থেকে আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহ গ্রহণ করেন চসিক মেয়র আ জ ম নাছির। এ সময় চসিকের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনীসহ প্রায় সবকটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন। শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কর্মরত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সুপারভাইজার ও প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর নিকট আতœীয় শওকত হোসেন জানান, শনিবার সকালে আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহ ইউএস বাংলার একটি বিমানে করে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে আনা হয়। বিমান বন্দরের প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ নিয়ে চট্টগ্রামের পূর্ব মাদারাবাড়ি নানার বাড়ির পথে রওনা দেন স্বজনরা। সেখানেই শৈশবের দিনগুলো কেটেছে শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর। স্বজনদের মধ্যে আইয়ুব বাচ্চুর অস্ট্রেলিয়া ও কানাডা প্রবাসী দুই সন্তান ফাইজুস সাবরা ও তাইজুস আনাফসহ ২৫ জনের একটি দল একই বিমানে করে চট্টগ্রামে আসেন। স্বজন ছাড়াও চট্টগ্রামের দুই শতাধিক ভিআইপি লোকজন মরদেহ নিতে বিমান বন্দরে আসেন। বিমান বন্দরের বাইরেরও শত শত গাড়ি অপেক্ষায় ছিলেন। মরদেহ নিয়ে যাওয়ার পথে গাড়ির মিছিলে পরিণত হয়।  

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ