ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে নিউইয়র্কসহ আমেরিকায় পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিতc

June 20, 2018, 1:27 AM, Hits: 312

ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে নিউইয়র্কসহ আমেরিকায় পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিতc

তৈয়বুর রহমান টনি,হ-বাংলা নিউজ : নিউ ইর্য়ক থেকেঃ ঈদ মানেই উৎসব। ঈদ মানেই আনন্দ। ঈদ প্রতিবছর নির্দিষ্ট তারিখে নির্দিষ্ট রীতিতে এক অনন্য আনন্দ- বৈভব বিলাতে ফিরে আসে। এক মাস কঠোর সিয়াম সাধনার মাধ্যমে নানা নিয়মকানুন পালনের পর উদযাপিত হয় ঈদুল ফিতর।

মুসলিম উম্মাহর অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরের দিনটি অশেষ তাৎপর্য ও মহিমায় অনন্য। মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার শেষে শাওয়ালের নতুন চাঁদ নিয়ে আসে পরম আনন্দ ও খুশির ঈদ। রোজাদার যে পরিচ্ছন্নতার ও পবিত্রতার সৌকর্য দ্বারা অভিষিক্ত হন, যে আত্মশুদ্ধি, সংযম, ত্যাগ-তিতিক্ষা, উদারতা, বদান্যতা, মহানুভবতা ও মানবতার গুণাবলি দ্বারা উদ্ভাসিত হন, এর গতিধারার প্রবাহ অক্ষুণ্ন রাখার শপথ গ্রহণের দিন হিসেবে ঈদুল ফিতর আসে। ধনী-গরীব সবাই মিলে এক কাতারে শামিল হয়ে ঈদগাহে ঈদের নামাজ আদায় করা হয়। মনে রাখতে হবে, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। তাই ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলেই যেন ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে পারেন সেই প্রচেষ্টা থাকতে হবে।

দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় উৎসবমুখর পরিবেশে  প্রবাসে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়েছে। মহান আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি লাভের আশায় দেশের ধর্মপ্রাণ কোটি মুসলমান ঈদগাহ ও মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন।বিপুল উৎসাহে যথাযোগ্য মর্যাদা আর ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে নিউইয়র্কসহ উত্তর আমেরিকায় ১৫ জুন শুক্রবার পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়েছে। দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধানার পর ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের বিশেষ আনন্দের দিন পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন। এবছর নিউইয়র্কে ২৯টি রোজা পালন করা হলেও যুক্তরাষ্ট্রের কোন কোন অঙ্গরাজ্যে ৩০টি রোজা পালন করতে হয়েছে।

চমৎকার আবহাওয়ায় নিউইয়র্কসহ উত্তর আমেরিকার একাধিক খোলা মাঠ, মসজিদ আর কমিউনিটি সেন্টারে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করা হয়। ঈদের জামাত শেষে অনুষ্ঠিত বিশেষ মুনাজাতে সমগ্র মুসলিম উম্মাসহ দেশ-জাতির মঙ্গল ও সমৃদ্ধি এবং দেশে দেশে নিপীড়িত-নির্যাতিত মুসলমানদের রক্ষায় মহান আল্লাহতায়ালার রহমত ও বিশ্ব নেতৃবৃন্দের সহযোগিতা কামনা করা হয়।

নিউইয়র্ক সিটিতে বাংলাদেশীদের দ্বারা পরিচালিত বৃহত্তম মসজিদগুলোর অন্যতম কুইন্স বরোর জ্যামাইকায় অবস্থিত জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার (জেএমসি)-এর উদ্যোগে স্থানীয় জ্যামাইকা হাই স্কুল মাঠে সকাল সোয়া ৯টায় উত্তর আমেরিকার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে শিশু-কিশোর-কিশোরী থেকে শুরু করে বয়োবৃদ্ধ সর্বস্তরের ১২/১৫ হাজার মুসলিম নর-নারী একত্রে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন বলে অনেকেই অভিমত প্রকাশ করেছেন। এই জামাতে ইমামতি ও বিশেষ দোয়া পরিচালনা করেন জেএমসি’র খতিব আলহাজ মাওলানা মির্জা আবু জাফর বেগ এবং খুৎবা পাঠ করেন জেএিমসি’র অন্যতম পরিচালক ইমাম শামসে আলী। জেএমসি আয়োজিত ঈদুল ফিতরের নামাজের আগে জেএমসি’র কর্মকর্তা ও মূলধারার রাজনীতিকরা উপস্থিত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

এদিকে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে সিটি প্রশাসন পাবলিক স্কুলে ছটি ঘোষণা করে। উল্লেখ্য, নিউইয়র্ক সিটির বর্তমান মেয়র বিল ডি ব্লাজিও প্রশাসন বছর দুই আগে মুসলমানদের দুই ঈদ যথাক্রমে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা’র দিন সিটির স্কুলগুলোতে ছটি ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেয়। 

ঈদের জামাতের আগে জেএমসি’র কর্মকর্তাদের মধ্যে জেএমসি’র  সভাপতি খাজা মিজান হাসান এবং মূলধারার রাজনীতিকদের মধ্যে নিউইয়র্ক সিটির কম্পট্রোলার স্কট স্ট্রীঙ্গার, নিউইয়র্ক ষ্টেট অ্যাসেম্বীম্যান ডেভিড ওয়েপ্রীন ও নিউইয়র্ক সিটির  

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ